নূরের হাতেই আগামীর বাংলাদেশ। ডঃ জাফরুল্লাহ

সদ্য ঘোষিত রাজনৈতিক দল গন অধিকার পরিষদের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সাম্য, মানবিক মর্যাদা, সামাজিক সুবিচার নিশ্চিতে তার আজীবন সাধনার একটি সফল পরিনতি প্রকাশ পেতে যাচ্ছে বলে তিনি মনে করেন।

‘কিবরিয়াকে দেখে আমার প্রত্যাশা, এখন থেকে নতুন কমিটি করে আমাদের পরিবর্তনগুলো আনতে হবে। আজকে দেশের সবার উন্নতি হতে পারে যদি ভালো সরকার হয়, তরুণরা ক্ষমতায় যেতে পারে। এই নতুন উদ্যোগকে আমি আন্তরিকভাবে শুভেচ্ছা জানাই।

একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, দেশে নির্বাচন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো অচল হয়ে পড়ছে। জনগন এই শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি থেকে মুক্তি চায়। বিগত সরকার গুলোও বাংলাদেশের মানুষের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে পারে নি। দলীয়করনে দেশ ভরে গেছে। সন্ত্রাসীদের হাতে মানুষের জান, মাল, ভোট জিম্মি হয়ে আছে। এমন অবস্থায় বাংলার আকাশে নূর প্রকাশিত হয়েছে গন অধিকার পরিষদের মাধ্যমে। তার প্রতি দেশের ছাত্র সমাজের সমর্থন পরীক্ষিত। কোটা সংস্কার আন্দোলনে ছাত্ররা তার ডাকে জীবন বাজি রেখে দাবি আদায়ে ঝাপিয়ে পড়েছিল। সেই আন্দোলন থেকে শিক্ষা নিয়ে পরবর্তীতে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন হয়।

ডঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী মনে করেন, জনগন আজ নূরের দিকে তাকিয়ে আছে। বিভক্ত বাঙালি জাতিকে নুরুল হক নূর ঐক্যবদ্ধ করার ক্ষমতা রাখেন। বাম-ডান সকল সংগঠন নূরের প্রশ্নে একমত। এই অবস্থায় শান্তিপ্রিয় জনগন ও সুশীল সমাজকে সাথে নিয়ে আগামীতে বৃহত্তর রাজনৈতিক প্লাটফরম গঠন করতে হবে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন ইসলামিক সংগঠন নূরের সাথে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। বুদ্ধিজীবি মহলের একাংশ একে স্বাগত জানিয়েছেন।

নতুন রাজনৈতিক দলে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে সতর্ক করে তিনি বলেন, ইনশা আল্লাহ, গন অধিকার পরিষদে কর্মীর অভাব হবে না। তবুও কর্মী বাছাইয়ে সদস্যের দেশপ্রেম, ত্যাগ, মনুষ্যত্ব, নেতৃত্ব এবং রাজনৈতিক জ্ঞানকে মূল্যায়ন করতে হবে। প্রত্যেক রাজনৈতিক দল তার অসৎ কর্মীদের কারনেই জনবিচ্ছিন্ন হয়। তাই গন মানুষের আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ গঠনে সৎ ,পরিশ্রমী ও নিঃস্বার্থ নেতৃত্বকে সামনে নিয়ে আসতে হবে।

এছাড়াও নুরের নতুন রাজনৈতিক দল ঘোষনাকে স্বাগত জানিয়েছেন জোনায়েদ সাকি, পীরে চরমোনাই, মুফতি এনায়েতউল্লাহ আব্বাসী, হেফাজতে ইসলামের সদস্য সহ আরো অনেক রাজনীতিবিদ। তারা সকলে ভবিষ্যতে নাগরিক অধিকার আদায়ে একসাথে রাজপথে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

Spread the love